করণা কালীন সময়ে যেসব জায়গায় যাওয়া একেবারেই উচিত নয় ( Places that should not be visited during the COVID19 period )

আমাদের এই পুরো পৃথিবী আজ করোনাভাইরাসের চাদরে জড়িয়ে রয়েছে । আরে করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে আমাদের অবশ্যই যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়াটা অত্যন্ত জরুরি । করোনাভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য প্রত্যেক দেশের সরকার নানা ধরনের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা  নিলেও কোন দেশি সফলভাবে এটিকে দমন করতে একেবারেই সম্ভব হয় নি।  আর তাই করো না পেরেছে আতঙ্ক মানুষের মাঝে আজও বিরাজমান । করোনাভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য প্রত্যেক দেশেই সামাজিক দূরত্ব লকডাউন  মাক্স  ব্যবহার বলা খুব জোরালোভাবে ।  শুধুমাত্র এসব কিছুতেই  ভাইরাস দমন সম্ভব নয়’ ।  এর জন্য আপনার হতে হবে সচেতন আপনার নির্দিষ্ট নিয়ম কানুন  ।  আমাদের আজকের এই ব্লগপোস্ট থেকে আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব যে করোনা কালীন এই সময়ে আপনার যে সকল স্থান ত্যাগ করাই  আপনার জন্য ভালো হবে  ।    আশা করি  ব্লগপোস্ট থেকে আপনি উপকৃত   হবেন  । 

 

যেসব স্থানে করো না কালীন সময়ে যাবেন  না 

 

✅হাট ও বাজার – আপনাকে যদি বলতে বলা হয় আপনি হাট বাজারে যাবেন না । তাহলে আপনি অবশ্যই বলবেন আমি খাব কি আমার বাজার কার বাসার খাবার  কে কিনবে ।  আচ্ছা আপনি তো আপনি প্রয়োজনে কতবার হাট-বাজারে যায় এবং প্রয়োজনে কতবার জান ? আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা অপ্রয়োজনে হাট বাজারে গিয়ে থাকে ।  আবার এমন অনেকেই রয়েছেন যারা হাট-বাজারে মানুষের সমাগম কিরকম হয়েছে তা দেখবার জন্য গিয়ে থাকে । যার হাস্যকর এবং বিপদজনক ।  এখনো প্রতিষঠান তৈরি হয়েছে প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা যে  কোন ধরনের খাবার বাসায় হোম ডেলিভারি করে থাকে ।  আর যদি আপনার আশেপাশে এরকম কোন ব্যবস্থা না থাকে তাহলে আপনি সর্বোচ্চ  প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিয়ে শুধুমাত্র প্রয়োজনে হাটবাজার যেতে পারেন । 

 

✅হোটেল কিংবা রেস্তোরাঁ – আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা হোটেল কিংবা রেস্তোরাঁর খাবার খুবই পছন্দ করে । আচ্ছা একটা বার ভাবুন তো আপনি যদি  বেঁচে না থাকেন তাহলে খাবেন কি করে ।  তাই হোটেলের খাবার জন্যও আপনাকে বাঁচতে হবে । হতে পারে হোটেলের খাবার কিংবা রেস্তোরাঁর খাবার সুস্বাদ্য । কিন্তু তাই বলে আপনার জীবনের থেকে বেশি না । তাই নিজের জীবনকে বাঁচাতে চাইলে এই সংকটকালে মুহূর্তে যথাসম্ভব হোটেল কিংবা রেস্তোরাঁ একেবারেই এড়িয়ে চলুন ।  না হলে হতে পারে যে হোটেলে আপনি খেতে যাচ্ছেন সেই হোটেলেই আপনার জীবনের শেষ খাবার হবে । আপনাদের সবার কাছেই একটা আমি এই সংকটকালে মুহূর্তের বিষয়টি একটু গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা  করুন ।

 

✅পর্যটন কেন্দ্র –  আমাদের যারা ঘুরতে খুব  ভালোবাসি ।  কিন্তু আমি বলব এই সংকটকালে মুহূর্তে ঘুরাঘুরির বিষয়টি মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে দিয়ে নিজের জীবনকে ভালোবাসো ।  না এই  ঘোরাঘুরি  কারণ আপনি আপনার জীবন  হারাতে পারেন । ধরুন আপনি কোথাও ঘুরতে যাবার প্ল্যান করছেন ।  তাহলে আপনাকে কি কি করতে হতে পারে ।  যেমন ধরুন আপনাকে বাস ট্রেন লঞ্চ কিংবা প্লেনে যেতে হতে পারে ।  এমনকি ট্রান্সপোর্টেশন কোথাও কোন এক হোটেলে থাকতে হবে সেটা ফাইভস্টার ।  উপরে উল্লেখিত প্রত্যেকটি জায়গায় জনসংযোগ  তা আমরা প্রত্যেকে  জানি ।  কিন্তু তারপর আমাদের যারা এসব  কিছু জানার পরেও ঘুরতে যাবে ।  তাদের জন্য বলছি আপনার জন্য না হলেও আপনার পরিবার এবং প্রিয় মানুষটির জন্য হলেও একটিবারের জন্য ভাবুন ।  ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান টা না হয় পরের বছরের জন্য তুলে রাখুন ।

 

✅পারিবারিক কিংবা সামাজিক কোনো অনুষ্ঠান – আমরা যে করোনাভাইরাস কে কোনভাবে পাত্তা দিচ্ছে না তার অন্যতম একটি উদাহরণ হল এই সংকটকালে মুহূর্তে আমরা অনেকেই সামাজিক কিংবা পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠান পালন করে থাকে । যেমন ধরুন বিবাহ । আমাদের বাংলাদেশসহ পৃথিবীর অন্যান্য অনেক দেশের অনেক মানুষই রয়েছেন এই সংকটকালে মুহূর্তেও  বিবাহ করছেন ।  বিবাহ করছেন খুব ভালো কথা কিন্তু তাই বলে বিবাহের অনুষ্ঠানে খুব জমকালো ভাবে করতে হবে তা কিন্তু নয় । না হয় সে আপনাকে তার  বিবাহে আমন্ত্রণ করেছে । কিন্তু  তাই বলে কি আপনি নাচতে নাচতে বিবাহের অনুষ্ঠানে চলে যাবেন  । একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে না গেলে কি এমন ক্ষতি হয় সে মন খারাপ করবে  এইতো  ।  না গেলে নিশ্চয়ই আপনাকে আমন্ত্রণ করা লোকটি মারা যাবে না  ।  কিন্তু আপনি বিবাহের অনুষ্ঠানে গিয়ে করো না ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যেত পারেন  ।  তাই নিজের জীবনের ভয়ে হলেও এই সকল সামাজিক কিংবা পারিবারিক অনুষ্ঠান   এড়িয়ে চলুন  । এমনকি এই সংকটকালীন মুহূর্তে আত্মীয়স্বজনের বাসায় যাবার অভ্যাসটি ত্যাগ করুন  ।  আপনি চাইলে আপনার আত্মীয় স্বজনের খোঁজ খবর  মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিতে পারে  ।  এমনকি আপনার  প্রিয় আপনি ভিডিও  কল করতে পারেন ।

 

পরিশেষে একটি কথাই বলব যে আপনি সংকটকালীন মুহূর্তে যা কিছুই করুন না কেন এমন কিছু করবেন না যাতে আপনি আপনার কিংবা আপনার পরিবারের কিংবা আপনার প্রতি বেশি ক্ষতির কারণ না হন । একটি কথা মাথায় রাখবে এই সময় গুলো হয়তো আপনি তাকে ফিরে পাবেন কিন্তু আপনি যদি  বেঁচে থাকেন সেই সময় মনে থাকবে কিন্তু আপনি থাকবেন ।

One thought on “করণা কালীন সময়ে যেসব জায়গায় যাওয়া একেবারেই উচিত নয় ( Places that should not be visited during the COVID19 period )

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *